মডিউল-১

মডিউল-১, সেশন-২ঃ ফার্মাসিস্ট কোড অব ইথিকস এবং মডেল মেডিসিন শপে গ্রেড ‘সি’ ফার্মাসিস্টদের (ফার্মেসি টেকনিশিয়ান) দায়িত্ব ও কর্তব্য

মডিউল-২

মডিউল-৪

মডিউল-৪, সেশন-৩ঃ ওষুধ প্রয়োগের পথ

মডিউল-৫

মডিউল-৫, সেশন-২ঃ শুধুমাত্র প্রেসক্রিপশনের মাধ্যমেই ক্রেতার নিকট বিক্রয়যোগ্য ওষুধসমূহ (Prescription Only Medicines)

মডিউল-৭

মডিউল-৭, সেশন-২ঃ এ্যান্টিবায়োটিকের অকার্যকর হওয়া যেভাবে ছড়িয়ে পড়ে

মডিউল-৮

মডিউল-৮, সেশন-২ঃ করোনা সংক্রমণকালীন নিরাপদ ওষুধ ডিসপেন্সিংয়ের ক্ষেত্রে সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা অনুসরণ

লেসন-৮ঃ ওষুধের কার্যকারিতার উপর অ্যালকোহলের প্রভাব

ওষুধের কার্যকারিতার উপর অ্যালকোহলের প্রভাব

  • কোন কোন ওষুধের সাথে অ্যালকোহল সেবনে বিষক্রিয়া বাড়তে পারে;
  • কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রকে নিস্তেজ করার ওষুধসমূহের সাথে অ্যালকোহল সেবনে অতিরিক্ত ঘুম ঘুম ভাব বা স্বাভাবিক কর্মকান্ডে সমন্বয়হীনতা বৃদ্ধি পেতে পারে;
  • পাকস্থলীতে স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় বিঘœ ঘটায়, অন্যান্য ক্ষতিকর ওষুধ যেমন ব্যথানাশকসমূহের (ঘঝঅওউং) সাথে সেবন করলে পাকস্থলীতে রক্তক্ষরণের সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়;
  • যকৃতের জন্য ক্ষতিকর ওষুধ যেমন: এসিটামিনোফেন, এমিওডারোন, মেথোট্রিকসেট ইত্যাদির সাথে একত্রে সেবন করা উচিত নয়;
  • খালি পেটে অ্যালকোহল সেবন করলে রক্তে গøুকোজ তৈরি বাধাগ্রস্থ হতে পারে, ফলে রক্তে গুলুকোজ কমানোর জন্য ইনসুলিন বা ডায়াবেটিসের অন্যান্য ওষুধের সাথে এলকোহল সেবন করলে গুলুকোজের স্বল্পতা দীর্ঘ সময় ধরে চলতে পারে;
  • ডাইসালফিউরাম গ্রহণের সাথে এলকোহল গ্রহণ করলে জীবন নাশের ঝুঁকিপূর্ণ বিষক্রিয়ার সৃষ্টি হতে পারে কারণ এটি ইথানলকে যকৃতে ভেঙ্গে ফেলার প্রক্রিয়াটি প্রতিহত করে;
  • বমি, মাথা ব্যথা, অতিরিক্ত রক্ত চলাচলসহ রক্তচাপ বৃদ্ধি করতে পারে;
  • মেট্রোনিডাজল, সেফোপেরাজোন, ক্লোরপ্রোপামাইড (ডায়াবেটিস) এবং প্রোকার্বাজিনের ক্ষেত্রেও একই ধরনের উপসর্গ দেখা দিতে পারে;