মডিউল-১

মডিউল-১, সেশন-২ঃ ফার্মাসিস্ট কোড অব ইথিকস এবং মডেল মেডিসিন শপে গ্রেড ‘সি’ ফার্মাসিস্টদের (ফার্মেসি টেকনিশিয়ান) দায়িত্ব ও কর্তব্য

মডিউল-২

মডিউল-৪

মডিউল-৪, সেশন-৩ঃ ওষুধ প্রয়োগের পথ

মডিউল-৫

মডিউল-৫, সেশন-২ঃ শুধুমাত্র প্রেসক্রিপশনের মাধ্যমেই ক্রেতার নিকট বিক্রয়যোগ্য ওষুধসমূহ (Prescription Only Medicines)

মডিউল-৭

মডিউল-৭, সেশন-২ঃ এ্যান্টিবায়োটিকের অকার্যকর হওয়া যেভাবে ছড়িয়ে পড়ে

মডিউল-৮

মডিউল-৮, সেশন-২ঃ করোনা সংক্রমণকালীন নিরাপদ ওষুধ ডিসপেন্সিংয়ের ক্ষেত্রে সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা অনুসরণ

লেসন-৬ঃ ওষুধের সাথে ওষুধের মিথস্ক্রিয়া/মিশ্রক্রিয়া এবং ওষুধের সাথে খাদ্যের মিথস্ক্রিয়া/মিশ্রক্রিয়া

ওষুধের সাথে ওষুধের মিথস্ক্রিয়া/মিশ্রক্রিয়া এবং ওষুধের সাথে খাদ্যের মিথস্ক্রিয়া/মিশ্রক্রিয়া

ওষুধের সাথে ওষুধের মিথস্ক্রিয়া/মিশ্রক্রিয়া

ওষুধের মিশ্রক্রিয়া

ফলাফল

প্রয়োজনীয় সতর্কতা

অ্যামোক্সিসিলিন এর সাথে জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি

অ্যামোক্সিসিলিন জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ির কার্যকারিতা কমায়।     

রোগী বা গ্রাহককে অতিরিক্ত সতর্কতা যেমন- অ্যামোক্সিসিলিন সেবনের সময় কনডম ব্যবহারের পরামর্শ দিন।

অ্যাসপিরিন+ ওয়ারফেরিন

একই সময়ে এই দুটো ওষুধ ব্যবহার করলে উভয়ের সম্মিলিত কার্যকারিতা বৃদ্ধি পায় এবং অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণ হতে পারে।

একসাথে ব্যবহার করা যাবে না।

চারকোল+যে কোন ওষুধ মুখে খেলে

যদি একই সময়ে সেবন করা হয় তবে চারকোল যে কোন ওষুধের শোষণ হতে বাধা দেয়।   

চারকোল এবং অন্য কোন ওষুধ একত্রে সেবন করা উচিত না।

সিপ্রোফ্লোক্সাসিন + ম্যাগনেসিয়াম এন্টাসিড     

ম্যাগনেসিয়াম এন্টাসিড সিপ্রোফ্লক্সাসিন এর শোষণ এবং কার্যকারিতা কমিয়ে দেয়।

প্রথমে সিপ্রোফ্লোক্সাসিন সেবন করুন এবং ২ ঘণ্টা অপেক্ষা করে তারপর এন্টাসিড সেবন করুন।

ইরাইথ্রোমাইসিন + ওয়ারফেরিন

ইরাইথ্রোমাইসিন ওয়ারফেরিনের সাথে একত্রে সেবন করলে তা রক্ত জমাট বাধা কমিয়ে দেয় এবং অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণের কারণ হতে পারে।

ইরাইথ্রোমাইসিন সেবনের পর ১ঘন্টা অপেক্ষা করে ওয়ারফেরিন সেবন করুন।

মেট্রোনিডাজল + এলকোহল

এলকোহল এবং মেট্রোনিডাজল একত্রে সেবন করলে মিশ্রক্রিয়ার ফলে গ্রাহকের অনেক বমি হয়।

মেট্রোনিডাজল দ্বারা চিকিৎসা চলাকালীন সময়ে এলকোহল সেবন করা যাবে না।

ওমিপ্রাজল+ ম্যাগনেসিয়াম এন্টাসিড

এন্টাসিড পাকস্থলীতে ওমিপ্রাজলের কার্যকারিতা নষ্ট করে দেয়।

ওমিপাজল সেবনের ২ ঘণ্টা পর ম্যাগনেসিয়াম এন্টাসিড খেতে হবে।

ফেনোবারবিটল+ ওয়ারফেরিন

ফেনোবারবিটল ওয়ারফেরিনের কার্যকারিতা নিস্ক্রিয় করে দেয়।

একই সাথে সেবনে করা থেকে বিরত থাকুন।

টেট্রাসাইক্লিনসমূহ (ডক্সিসাইক্লিন, অক্সিটেট্রাসাইক্লিন) + এন্টাসিড

উভয়ই অপর ওষুধের শোষণকে প্রভাবিত করে।

ওষুধ দুটি আলাদাভাবে ২ ঘণ্টা ব্যবধানে সেবন করতে হবে।

টেট্রাসাইক্লিনসমূহ + আয়রণ, ক্যালসিয়াম বা জিংক সমৃদ্ধ ওষুধ

একে অপরের শোষণকে প্রভাবিত করে।

ওষুধগুলো আলাদাভাবে ২ ঘণ্টা ব্যবধানে সেবন করতে হবে।

ওষুধের সাথে খাদ্যের মিথস্ক্রিয়া/মিশ্রক্রিয়া

ওষুধের মিশ্রক্রিয়া

ওষুধের মিশ্রক্রিয়া

ওষুধের মিশ্রক্রিয়া

সিপ্রোফ্লোক্সাসিন+দুধ

দুধ সিপ্রোফ্লোক্সাসিনের কার্যকারিতা কমিয়ে দেয়।

দুধ পান করার দুই ঘণ্টা পর সিপ্রোফ্লোক্সাসিন সেবন করুন।

এম্পিসিলিন+যে কোন খাবার

পাকস্থলীতে যে কোন খাবারের উপস্থিতি এমপিসিলিনের শোষণ কমিয়ে দেয়।

খাবার গ্রহণের ১ ঘণ্টা পূর্বে এমপিসিলিন সেবন করুন।

গ্রাইসোফুলভিন+চর্বিযুক্ত খাবার

চর্বিযুক্ত খাবার গ্রাইসোফুলভিনের শোষণ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়।

চর্বিযুক্ত খাবারের সাথে গ্রাইসি- -ওফুলভিন সেবন করতে হবে।

জাম্বুরা জাতীয় ফলের সাথে বিভিন্ন ওষুধের মিশ্রক্রিয়াঃ উচ্চ রক্তচাপ কমানোর ওষুধ (ফিলোডিপিন, নিফেডিপিন, নিমোডিপিন, নিকারডিপিন) রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমানোর ওষুধসমূহ (সাইক্লোস্পোরিন, ট্যাক্রলিমাস) রক্তে চর্বি কমানোর ওষুধসমূহ (অ্যাটরভাসট্যাটিন, লোভাস্ট্যাটিন, সিমভাসট্যাটিন), মানসিক চাপ কমানোর বা হতাশা কমানোর ওষুধসমূহ (ডায়াজিপাম, মিডাজোলাম, ট্রায়াজোলাম, জ্যালেপলোন, কার্বাসাজিপাইন, ক্লোমিপ্রামিন) 

এই সকল ওষুধ সেবনের আগে বা পরে জাম্বুরা জাতীয় ফল বা ফলের রস খাবেন না