মডিউল-১

মডিউল-১, সেশন-২ঃ ফার্মাসিস্ট কোড অব ইথিকস এবং মডেল মেডিসিন শপে গ্রেড ‘সি’ ফার্মাসিস্টদের (ফার্মেসি টেকনিশিয়ান) দায়িত্ব ও কর্তব্য

মডিউল-২

মডিউল-৪

মডিউল-৪, সেশন-৩ঃ ওষুধ প্রয়োগের পথ

মডিউল-৫

মডিউল-৫, সেশন-২ঃ শুধুমাত্র প্রেসক্রিপশনের মাধ্যমেই ক্রেতার নিকট বিক্রয়যোগ্য ওষুধসমূহ (Prescription Only Medicines)

মডিউল-৭

মডিউল-৭, সেশন-২ঃ এ্যান্টিবায়োটিকের অকার্যকর হওয়া যেভাবে ছড়িয়ে পড়ে

মডিউল-৮

মডিউল-৮, সেশন-২ঃ করোনা সংক্রমণকালীন নিরাপদ ওষুধ ডিসপেন্সিংয়ের ক্ষেত্রে সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা অনুসরণ

লেসন-৪ঃ ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট (বড়ি)

ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট (বড়ি)

ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট (বড়ি)

ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট সাধারণত হাড়ের স্বাস্থ্যকে উন্নত করার জন্য বিশেষভাবে ডিজাইনকৃত ক্যালসিয়াম এবং ভিটামিন-ডি (কোলেক্যালসিফেরোল) এর সমন্বয়।

ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট সেবনবিধি

আপনার চিকিৎসক যেভাবে বলেছেন, সকল সময় ঠিক সেভাবেই ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট সেবন করুন। আপনি যদি নিশ্চিত না হন তবে সঠিক তথ্যের জন্য আপনার চিকিৎসক অথবা ফার্মাসিস্টের সাথে যোগাযোগ করুন।

কতটুকু সেবন করা যাবে

১টি ট্যাবলেট প্রতিদিন ২ বার অথবা আপনার চিকিৎসক যেভাবে নির্দেশনা দিয়েছেন সেই পরিমাণে সেবন করুন।

আপনি যদি অতিরিক্ত সেবন করেন তবে যা করণীয়

যদি আপনি মাত্রাতিরিক্ত ওষুধ সেবন করে থাকেন তবে সরাসরি চিকিৎসকের সাথে তাৎক্ষণিকভাবে যোগাযোগ করুন।

যদি ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট খেতে ভুলে যান তবে যা করণীয়

যদি একটি ডোজ খেতে ভুলে যান, তবে মনে পড়ার সাথে সাথে সেটি খেয়ে নিতে হবে। তবে যদি পরবর্তী ডোজের সময়ের কাছাকাছি চলে আসে, তবে পূর্বের ভুলে যাওয়া ডোজটি বাদ দিবেন। কখনই পূর্বের ডোজটি ভুলে যাওয়ার কারণে ২ টি ডোজ একসাথে খাওয়া যাবে না ।

আপনি যদি ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট সেবন করা বন্ধ করে দিয়ে থাকেন

চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া এই ওষুধ সেবন বন্ধ করা উচিৎ নয়। আপনি শুধু ভাল বোধ করছেন বলেই ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট সেবন বন্ধ করা যাবে না। কারণ তাতে সমস্যাটি পুনরায় ফিরে আসতে পারে, এমনকি পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারে। আপনার যদি এই ওষুধ সম্পর্কে আরো কিছু জানার থাকে তবে আপনার চিকিৎসক বা ফার্মাসিস্টকে জিজ্ঞাসা করুন।

যে সকল ক্ষেত্রে সেবন করা যাবে না

এই ওষুধ সেবন করবেন না এবং আপনার চিকিৎসককে জানাবেন, যদি:

  • কোন ব্যক্তির ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট এর কোন একটি উপাদানের প্রতি হাইপার সেনসিটিভিটি থাকে তবে তার জন্য এটি সেবন করা নিষেধ।
  • একই সাথে অন্য ওষুধ সেবন
  • ক্যালসিয়াম ট্যাবলেটের সাথে যদি থায়াজাইড শ্রেণিভুক্ত ডাইইউরেটিকস সেবন করা হয় তবে রক্তে ক্যালসিয়ামের মাত্রা

স্বাভাবিকের চেয়ে বেড়ে যাওয়ার ঝুঁকি থাকে – সে ক্ষেত্রে ক্যালসিয়াম সেবনের কার্যকারিতা কমে যায়। ক্যালসিয়ামের লবণ বেশকিছু ওষুধের শোষণকে কমিয়ে দেয় – যেমন- বাইফসফোনেট, ফ্লুরাইড, কিছু কিছু ফ্লুরোকুইনোলোন এবং
টেট্রাসাইক্লিন।

গর্ভাবস্থায় ও শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানোর সময়

রোগীর ভাল মন্দ বা উপকারিতা/ঝুঁকি বিবেচনা করে ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট সেবন করার জন্য বলা উচিৎ।

সম্ভাব্য পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়াসমূহ

সাধারণত ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট শরীরে যথেষ্ট সহনীয়। তবে কখনো কখনো পরিপাকতন্ত্রের কিছু সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে। যদি কোন একটি পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া মারাত্মক পর্যায়ে চলে যায় বা বেশ কিছুদিন ধরে চলতে থাকে বা লিফলেট নির্দেশিত পার্শ্ব- প্রতিক্রিয়াসমূহের বাইরে কোন সমস্যা দেখা দেয় তবে আপনার চিকিৎসককে বলুন।

ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট কিভাবে সংরক্ষণ করবেন

এটি আলো থেকে দূরে, শুকনো এবং ঠাণ্ডা জায়গায় রাখুন। শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন।