মডিউল-১

মডিউল-১, সেশন-২ঃ ফার্মাসিস্ট কোড অব ইথিকস এবং মডেল মেডিসিন শপে গ্রেড ‘সি’ ফার্মাসিস্টদের (ফার্মেসি টেকনিশিয়ান) দায়িত্ব ও কর্তব্য

মডিউল-২

মডিউল-৪

মডিউল-৪, সেশন-৩ঃ ওষুধ প্রয়োগের পথ

মডিউল-৫

মডিউল-৫, সেশন-২ঃ শুধুমাত্র প্রেসক্রিপশনের মাধ্যমেই ক্রেতার নিকট বিক্রয়যোগ্য ওষুধসমূহ (Prescription Only Medicines)

মডিউল-৭

মডিউল-৭, সেশন-২ঃ এ্যান্টিবায়োটিকের অকার্যকর হওয়া যেভাবে ছড়িয়ে পড়ে

মডিউল-৮

মডিউল-৮, সেশন-২ঃ করোনা সংক্রমণকালীন নিরাপদ ওষুধ ডিসপেন্সিংয়ের ক্ষেত্রে সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা অনুসরণ

লেসন-৩ঃ নিম্নমানের ওষুধ হিসাবে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ব্যবস্থাপনা

নিম্নমানের ওষুধ হিসাবে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ব্যবস্থাপনা

ওষুধের পাত্রে মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ার তারিখ অবশ্যই চোখে পড়ার মত করে লেখা থাকতে হবে। এতে কোন পরিবর্তন করা যাবে না। মডেল মেডিসিন শপে তাকের ওষুধগুলো কোন একটিও মেয়াদোত্তীর্ণ হতে পারবে না। কখনো মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার আগেই কোন কোন ওষুধের ভৌত গুণাবলি পরিবর্তিত হতে পারে, এ ধরনের ওষুধ সেবন মানব স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে এবং এগুলো মডেল মেডিসিন শপের তাক থেকে সরিয়ে ফেলতে হবে।

মেয়াদোত্তীর্ণ এবং ক্ষতিগ্রস্থ সকল ওষুধ বিক্রয়যোগ্য ওষুধগুলো থেকে আলাদা করে ফেলতে হবে এবং সম্ভব হলে অন্যত্র সরিয়ে ফেলতে হবে। সকল মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধের জন্য একটি নথি সংরক্ষণ করুন।

নিম্নলিখিত তথ্যগুলো মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধের নথিতে থাকা উচিত-

  • ওষুধের নাম
  • ডোজেস ফর্ম এবং স্ট্রেন্থ
  • পরিমাণ
  • উৎপাদন ব্যাচ নং
  • মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ার তারিখ